ঢাকায় আনা হচ্ছে চীনফেরত রংপুরে চিকিৎসাধীন সেই শিক্ষার্থীকে


রংপুরে ভর্তি আলামিন নামের সেই চীন ফেরত শিক্ষার্থীকে ঢাকায় রেফার করা হয়েছে।

রংপুরে ভর্তি আলামিন নামের সেই চীন ফেরত শিক্ষার্থীকে ঢাকায় রেফার করা হয়েছে। তাকে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হতে পারে। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক দেবেন্দ্রনাথ সরকার আজ সোমবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেছেন, আলামিনের অবস্থা সংকটজনক। 

করোনায় আক্রান্ত সন্দেহে চীন ফেরত আলামিনকে রবিবার রাত ১১ টা ৫৫ মিনিটে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগে ভর্তি করা হয়েছিল। তার বাড়ি লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে চলবলা মদনপুরে। তিনি ওই গ্রামের রেজাউল ইসলামের ছেলে। 

আইসোলেশন বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক হুমায়ুন কবির জানান, চীন ফেরত ওই শিক্ষার্থী ইয়াংহু বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করত। রবিবার সকাল ৭টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে নামেন। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। রাত ১০টায় তিনি তার নিজ বাড়ি কালীগঞ্জে আসেন। এখানে আসার পর তার বমি এবং শারীরিক দুর্বলতা দেখা দিলে দ্রুত তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল।

 

গত শনিবার থেকে রংপুরে চিকিৎসাধীন আছেন চীন ফেরত আরেক শিক্ষার্থী তাশদীদ হোসেন। তার শরীরের ঘাম, রক্ত এবং লালার নমুনা আইইডিসিআরের ল্যাব টেকনিশিয়ান পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার এ বিষয়ে চূড়ান্ত রিপোর্ট দিবে আইইডিসিআর। 
তাশদীদ হোসেন (২৪) শ্বাসকষ্ট নিয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। রমেক হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. দেবেন্দ্রনাথ সরকার বলেন, তাশদীদের আপাতত কোনো সমস্যা নেই। তবে জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইডিসিআর) প্রতিবেদন না আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

তাশদীদ নীলফামারীর ডোমার উপজেলার মির্জাগজ্ঞের মোতালেব হোসেনের ছেলে।